বৃহস্পতিবার , মে ২৩, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

চোখের ক্ষতি হবে না এমন টিভি উদ্ভাবন করল মিনিস্টার


জিএম ফাতিউল হাফিজ বাবু
এক সময় বাচ্চারা খেলাধুলা করত মাঠে ময়দানে। সময়ের বিবর্তনে ওই মাঠগুলো এখন আর দেখা যায় না। এই বাচ্চাদের খেলার জায়গা আর সঙ্গীর অভাবে এখন টেলিভিশনই (টিভি) হয়েছে একমাত্র বিনোদনের মাধ্যম। এছাড়াও বর্তমানে বাচ্চাদের খাওয়ার জন্য টিভিতে কার্টুন দেখিয়ে ভোলায় মায়েরা। এসব কার্টুনের কারণেও বাচ্চাদের বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ ঘটছে। শুধু বাচ্চায় নয় বিশ্বের আনাচে-কানাচের খবরা-খবর পেতে হলে টিভির পর্দায় চোখ রাখেন সব শ্রেণির মানুষ। প্রযুক্তির যুগে টেলিভিশন ছাড়া কল্পনায় করা যায় না। অনেকেই টিভির সামনে গেলে চশমা চোখে দিয়ে বসে থাকে। বর্তমানে বাচ্চা সহ সব বয়সের মানুষের জন্য মোটা চশমা একটা ফ্যাশন হয়ে দাড়িয়েছে। কারণ টিভি স্ক্রিনের সামনে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকা। এই সমস্যা সমাধানে মিনিস্টার হাইটেক-টেক পার্ক লি. বাজারে নিয়ে এসেছে আই প্রোটেক্টিভ টেকনোলজি দ্বারা তৈরি এলইডি টিভি। এই কোম্পানী তাদের নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে। সারাদিন টিভির সামনে বসে থাকলেও চোখের কোন ক্ষতি হবে না। এমন চিন্তা করেই ওই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা হয়েছে। যার দ্বারা চাখের ক্ষতি করেনা। উন্নত মানের প্যানেল এবং সার্কিট ব্যবহার করা হয় মিনিস্টার এলইডি টিভিতে। এছাড়া শিশুরা কম্পিউটার নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহী। একের ভেতর অনেক হিসেবে থাকছে মিনিস্টার এলইডি টিভিকে কম্পিউটার মনিটর হিসেবে ব্যবহারের সুযোগ। চমৎকার ছবি ও শব্দ, সাথে বিদ্যুৎ খরচ খুবই কম। সম্পুর্ণ এইচডি সিস্টেম এবং বজ্রপাতে প্যানেল নষ্ট হয় না। ১ বছরের রিপ্লসমেন্ট গ্যারান্টি ও ৭ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি রয়েছে এই এলইডি টিভিতে। তাই চোখের সুরক্ষার জন্য সকলের পছন্দ মিনিস্টারের এলইডি টিভি। বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির টিভি আছে জেনেও সকলের চোখের যতেœ মিনিস্টার হাইটেক-টেক পার্ক লি. এর নতুন পণ্য আই প্রটেকটিভ টেকনোলজি দ্বারা নির্মিত এলইডি টিভি। ১৯ ইঞ্চি এবং ২০ ইঞ্চি গ্লোরিয়াস এলইডি টিভির দামও খুব সহনীয়। যার মূল্য মাত্র ১২ হাজার ৭৯৬ টাকা।

error: Content is protected !!