রবিবার , অক্টোবর ২১, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

উপকারি সবুজ চা

জীবনধারা ডেস্ক

নিজেকে সুন্দর আর সতেজ রাখতে চান, তাহলে সবুজ চা খান। প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এক কাপ চা নাহলে অনেকের দিন শুরু হয় না। সবুজ চা খেলে শুধু মন নয়, শারীরিক নানা সমস্যার সমাধান পাবেন। অন্যান্য যে কোন পানীয় থেকে সবুজ চায়ের উপকারিতা সবচেয়ে বেশি। আগে এটি শুধুমাত্র ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা হত। শরীরের বিভিন্ন সমস্যা ও ক্যান্সার থেকে শুরু করে ডায়বেটিস, যেকোন ত্বকের সমস্যা, হার্টের সমস্যা সারাতে ভালো কাজ করে থাকে। এছাড়াও ত্বক ও চুলকে সুন্দর করতে এটি খুব ভালো কাজ করে। জেনে নিন সবুজ চা সম্পর্কে-

সবুজ চায়ের গুণাগুণ: এটি যেকোন ধরণের ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। যেমন স্কিন ক্যান্সার, ব্রেস্ট ক্যান্সার, লিভার ক্যান্সার ইত্যাদি। এটি ক্যান্সারকে ছড়িয়ে পড়তে বাঁধা দেয়। এতে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও মিনারেলস। যা শরীরকে সতেজ ও সুস্থ রাখতে ভীষণভাবে উপকারি। বিভিন্ন সমীক্ষা থেকে জানা গেছে যে, যারা প্রতিদিন এক কাপ সবুজ চা পান করেন, তাদের তুলনায় যারা প্রতিদিন পাঁচ কাপ পান করেন তাদের হার্ট অনেক বেশি ভালো থাকে। এটি শরীর থেকে খারাপ কোলেস্ট্রল কমিয়ে হার্টকে সুস্থ ও স্ট্রোকের হাত থেকে বাঁচাতে সাহায্য করে। তাই হার্ট ভালো রাখতে চাইলে প্রতিদিনের ডায়েট চার্টে এই চা অবশ্যই রাখতে হবে। যদি এটি প্রতিদিন পান করেন তাদের ডায়বেটিসের মতো রোগও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

বিভিন্ন গবেষণা থেকে জানা যায় যে, সবুজ চা ত্বক ও চুলকে সুন্দর রাখতেও অনেক ভালো কাজ করে। শুধু সুন্দর নয়, বিভিন্ন ত্বকের সমস্যা যেমন ব্রণ, খুসকি সমস্যা, ত্বক ফেঁটে যাওয়ার সমস্যা, যেগুলো থেকে মুক্তি পাওয়া অনেক কঠিন। সেগুলো থেকেও মুক্তি দিতে পারে এই চা। সবুজ চা হল গ্লোয়িং স্কিনের একটি রহস্য। যা ত্বক ও চুলকে ভেতর থেকে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

অতিরিক্ত ওজন কমাতে সবুজ চায়ের জুড়ি মেলা ভার। শরীরিরের অতিরিক্ত মেদ কমাতে এটি একটি প্রমাণিত সমাধান। এই চায়ের আর একটি ভালো গুণ হলো, রক্ত সঞ্চালনের মাধ্যমে এটি মস্তিস্ককে সঠিকভাবে পরিচালনা করতে সাহায্য করে। যার ফলে মস্তিস্ক দ্রুত কাজ করতে পারে। রোজ এই চা পান করলে দাঁতও সুন্দর থাকে। এটি মুখের ভেতরের ব্যাক্টেরিয়া ও ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ করে। এতে মুখের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। নিজেকে সুন্দর ও ফিট রাখতে চাইলে প্রতিদিন এটি পান করতে হবে।

স্বাস্থ্য সচেতন ও ওজন নিয়ন্ত্রণকারীদের মাঝে সবুজ চা এখন বেশ পরিচিত। কারণ এর কার্যকারিতা অনেক বার প্রমাণিত হয়েছে। তবে সবুজ চা থেকে উপকার পেতে হলে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। সেগুলো হল-

১. অনেকেরই ভ্রান্ত ধারণা, খাওয়ার পর পরই সবুজ চা পান করলে জাদু বলে সব মেদ ঝরে যাবে। এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। খাওয়ার পর পরই জমে থাকা আমিষ পুরোপুরি হজম হয় না। তাই এ সময় গ্রীন-টি পান করলে হজম প্রক্রিয়া ব্যহত হয়।

২. অতিরিক্ত গরম সবুজ চা পান করলে তার কোন স্বাদ পাওয়া যায় না। সেই সঙ্গে তাপের কারণে পাকস্থলী ও গলা ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। তাই এটি পান করতে হবে কুসুম গরম থাকা অবস্থায়।

৩. সবুজ চাতে অনেকেই মধু মিশিয়ে পান করতে পছন্দ করেন। কারণ এটি চিনির স্বাস্থ্যকর বিকল্প ও সুস্বাদু। তবে এর সঙ্গে গরম অবস্থায় মধু মেশালে এর পুষ্টিগুণ নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই চুলা থেকে নামিয়ে কুসুম গরম অবস্থায় পৌঁছালে মধু মেশাতে হবে।

৪. সবুজ চা খাওয়ার আগে বা পরে ওষুধ খাওয়া উচিত নয়। এমন কি, এর সঙ্গেও ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়। কারণ ওষুধের রাসায়নিক উপাদান এর সঙ্গে মিশে এসিডিটির সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে।

সূত্রঃ ডেইলি বাংলাদেশ