শনিবার , সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

সরিষাবাড়ীতে জাহিদ হত্যাকারীদের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর, লুটপাট : আটক ২

স্টাফ করসপনডেন্ট, সরিষাবাড়ী
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে জাহিদুর রহমান হত্যার ঘটনার জের ধরে আসামীদের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর এবং লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (১ জুন) সকালে উপজেলার নরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত আরও ১জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে গ্রেফতার হলো ২জন।


স্থানীয় ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার নরপাড়া গ্রামের নিহত জাহিদের পক্ষের লোকজন দলবদ্ধ হয়ে শুক্রবার সকালে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সোহরাব আলী, ফারুক হোসেন, ফরিদ হোসেন, মুক্তার, ফরহাদ, মোবারক, সাজু মিয়া, তোফাজ্জল হোসেন, সাঈদ, শহিদ, চান মিয়া, ইউপি সদস্য আঃ সাত্তারসহ ১৮ জনের বাড়িতে একযোগে হামলা করে। এ সময় তারা প্রায় ৩০টি ঘরে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট করে। হামলায় প্রতিটি বাড়ির কোন জিনিস পত্র রক্ষা পায়নি বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। এদের আক্রোশ থেকে রান্না ও গোয়াল ঘর, ফলজ বৃক্ষ রক্ষা পায়নি। হত্যকান্ডের ঘটনায় বাড়ীতে হামলার আশঙ্কায় ১৮ পরিবারের কোন সদস্যই বাড়িতে ছিলেন না। আর সে কারনে কেউ হতাহত হয়নি। অস্ত্রধারী হামলাকারীদের তান্ডবে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্য হারুন অর রশিদ ও আঃ সালাম (বাংলার বাবু)কে গ্রেফতার করেছে। দুই ব্যাক্তিকে আদালতের মাধ্যমে শুক্রবার জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এ হত্যার বিচারের দাবীতে গতকাল এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করে সকল আসামীদের গ্রেফতারের দাবী জানায়। এলাকায় আরো অপ্রিতীকর সংঘাত এড়াতে আইন শৃংখলা বজায় রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ জোয়াহের হোসেন খান নিশ্চিত করেন। জাহিদুর রহমান এর লাশের ময়না তদন্ত শেষে নিজ বাড়ী উপজেলার নরপাড়া গ্রামে দাফন করা হয়েছে বলে জানাগেছে।
এ ব্যাপারে তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক জোয়াহের হোসেন খান জানান, হত্যাকান্ডের ঘটনায় স্থানীয় ইউপি সদস্য হারুন অর রশীদ ও আঃ সালামকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকান্ডে জড়িতদের অন্যদের আটকের চেষ্টা ও প্রকৃত ঘটনা খোঁজার চেষ্টা চলছে।

error: Content is protected !!