বুধবার , নভেম্বর ১৪, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

জামালপুরের শাহবাজপুরে টার্কি চাষে গৃহবধু স্বাবলম্বী


রবিউল হাসান লায়ন
জামালপুর সদর উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের কৈডোলা গ্রামে তানভিন টার্কি খামার নামে মোঃ রফিকুল ইসলামের স্ত্রী মাইশা ইসলাম মিষ্টি (২৫) টার্কি খামার গড়ে তোলেন। বর্তমানে এর মাধ্যমে তিনি নিজেকে স্বাবলম্বী করে তুলেছেন।
জানা যায়, মাইশা ইসলাম মিষ্টি অনার্স পাশ করে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। সেখান থেকেই তিনি টার্কি চাষের বিষয়ে বিভিন্ন অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। প্রায় ১৪ মাস আগে চাকরি ছেড়ে দিয়ে বাড়ীতে গড়ে তুলেন টার্কি খামার। বর্তমানে তার এ খামারে প্রায় ৭০ টি টার্কি রয়েছে। সেই সাথে রয়েছে পোল্ট্রি মুরগির খামার। টার্কি চাষের অভিজ্ঞতার জন্য লুয়েছ কাশবন নামে একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ইতিমধ্যে কুয়েত, সৌদি আরব, রুমান, ব্যাংকক ভ্রমন করেছেন। তার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে। ছেলেটি টাঙ্গাইল ক্যাডেট কলেজে পড়ালেখা করছে। টার্কি চাষ করে প্রতি মাসে প্রায় ৩০ হাজার টাকা আয় করছেন গৃহবধু মিষ্টি। তার বাড়ী থেকেই টার্কির প্রতিটি বাচ্চা ৬০০ টাকা এবং ১ হালি ডিম ৬০০ টাকা দরে বিক্রি করছেন। এ বিষয়ে মিষ্টি জানান, আমি যুব উন্নয়ন সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ট্রেনিং নিয়ে নিজেকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার জন্য এই টার্কি চাষ শুরু করি। প্রথমে মাত্র ১০ জোড়া ছোট বাচ্চা দিয়ে এই চাষ শুরু করা হলেও আজ অনেক বিস্তার লাভ করেছে আমার খামার। দূর-দূরান্ত থেকে যুবক যুবতীরা এসে আমার কাছ থেকে টার্কির বাচ্চা ও ডিম ক্রয় করে তারাও খামার গড়ে তুলছে।