শনিবার , মে ২৬, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

জামালপুরে চাঞ্চল্যকর আব্দুল হকের হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


এম আলমগীর, স্টাফ করসপনডেন্ট
জামালপুর সদর উপজেলার নরুন্দি ইউনিয়নের মহিশুড়া গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর ছেলে মাওলানা আব্দুল হক হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে পরিবারের সদস্যবৃন্দ।

শনিবার সকালে জামালপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল হকের স্ত্রী মরিয়ম আক্তার তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার স্বামী হাজীদের মোয়াল্লেম হিসেবে কাজ করতেন। তিনি জামালপুর সদর উপজেলাধীন নরুন্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী সরকার ও ইটাইল বাজারের চাঁন মিয়ার সাথে মোটর সাইকেলে চলাফেরা করতো এবং ডলার লেনদেন বিষয়ে মোবাইল ফোনে তাদের সাথে যোগাযোগ করতেন। গত ১২ মে ২০১৭ইং তারিখে আমার স্বামী বাড়ী থেকে বিকেলে চলে আসে। এরপর থেকে আমার স্বামীর সাথে কোন যোগাযোগ হয়নি। ১৬ মে ২০১৭ইং তারিখে ব্রহ্মপুত্র নদীতে সকাল ৭টায় স্থানীয় লোকজন ও পুলিশের উপস্থিতিতে তার লাশ পাওয়া যায়। তিনি লিখিত বক্তব্যে আরও অভিযোগ করেন, নরুন্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী সরকার ও চাঁন মিয়া এবং তাদের সহযোগীদের নিয়ে গত ১২ মে ২০১৭ইং তারিখে রাতে আনুমানিক ৯ টার পর থেকে কোন এক সময় আমার স্বামীর কাছে থাকা টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়ে তাকে খুন করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে দুটি সিমেন্টের খুটি তার শরীরে বেঁধে ব্রহ্মপুত্র নদীতে ফেলে রাখে। উল্লেখ্য, ওই দিন আমার স্বামী ১০ লক্ষ টাকার ডলার সংগ্রহ করার জন্য ইটাইল যাচ্ছিলেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস তারা দুজন তাদের সহযোগী নিয়ে আমার স্বামীর টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়। তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তার স্বামীর হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তির দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে মরহুমের স্ত্রী, মরহুমের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মারজুক (০৪), মরহুমের স্ত্রীর বড় ভাই গোলাম রব্বানী, মামা আনোয়ার হোসেন, মা সুফিয়া বেওয়াসহ ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ ঘটনায় জিআর ৩৭৮ (২) ১৭, দঃবিঃ ৩০২/২০১/৩৭৯ ও ৩৪ ধারায় জামালপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-৫৫, তারিখ-১৬/০৫/২০১৭ইং।