সোমবার , জুন ২৫, ২০১৮

ড্রোন ডেলিভারি: আলাদা নেটওয়ার্কের পরিকল্পনা গুগল-অ্যামাজনের

নিউজ ডেস্ক

স্বয়ংক্রিয় উড়ন্ত যান বা ড্রোনের সাহায্যে বাড়ি বাড়ি পন্য পরিবহন করার কাজটি চালু করার কথা বেশ কিছুদিন ধরেই ভাবছে অ্যামাজন। এবার এই ড্রোন চলাচলের পথ নির্বিঘ্ন করার ব্যবস্থাও গ্রহণ করছে অ্যামাজন ও গুগল। তারা ড্রোন ডেলিভারির জন্য ভাবছে আলাদা এয়ার ট্রাফিক নেটওয়ার্ক চালুর কথা।

অ্যামাজন ও গুগল,  ড্রোন ডেলিভারি জন্য তাদের নিজস্ব এয়ার ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ নেটওয়ার্ক আরো উন্নত করতে চাচ্ছে। এই পরিকল্পনাটি গত সপ্তাহে ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ)-এর কনফারেন্সে প্রকাশ করা হয়। এখানে অ্যামাজনের সহকারী হিসেবে ছিল এ্যামনেস, জেনারেল ইলেকট্রিক, বোয়িং ও গুগল। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে এমন তথ্য।

এটি বর্তমান ফেডারেল সিস্টেম থেকে সম্পূর্ণ আলাদা, বেসরকারীভাবে পরিচালিত নেটওয়ার্কের ধীর গতির লেনগুলোতে ২০০ ফুট উচ্চতায় এবং দ্রুতগতির লেনের জন্য ২০০-৪০০ ফুট উচ্চতার মধ্যে ড্রোনের উড্ডয়ন সীমাবদ্ধ রাখবে। অ্যামাজনের ড্রোন-ডেলিভারি বিভাগের প্রধান গুর কিমচি ব্লুমবার্গকে বলেন যে, ড্রোনের ৪০০ ফুট উচ্চতার মধ্যে উড়া উচিত।

এফএএর নিয়ম অনুযায়ী, ছোট যাত্রীহীন বিমানের জন্য সর্বোচ্চ অনুমোদিত উচ্চতা ৪০০ ফুট। কিমচি বলেন যে, দীর্ঘ দূরত্বের জন্য ড্রোনের সময়সূচী এবং গন্তব্যের বার্তা দিতে হবে এবং তাদের ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত থাকতে হবে।

এছাড়াও অ্যামাজনের পক্ষ থেকে বলা হয় যে, ড্রোনগুলি যেন দীর্ঘ দূরত্বে উড়ে যেতে পারে, সেজন্য তাদের সেন্সর সংযুক্ত করা প্রয়োজন যাতে করে তারা পাখি এবং অন্যান্য বিপদ সনাক্ত করতে পারে।

বেসরকারী যাত্রীহীন ট্র্যাফিক ব্যবস্থাপনা নেটওয়ার্কের মূল ধারণাটি নাসা’র সিনিয়র এয়ার-পরিবহন প্রযুক্তিবিদ

পরিমল কোপারদেকার ১০০০ জন অংশগ্রহণকারীর উপস্থিতিতে একটি সম্মেলনে প্রথম প্রস্তাব করা করেছিলেন।

আগামী তিন মাসের মধ্যে নেটওয়ার্কের উপর পরীক্ষা চালানোর জন্য অতি শক্তিশালী দুই প্রযুক্তি সংস্থা  নাসা-র সাথে কাজ করবে।

সূত্রঃ এনটিভি অনলাইন