বুধবার , আগস্ট ১৫, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

সরিষাবাড়ীতে কৃষকলীগের নেতাকে লাঞ্ছিত করায় মহিলাদের জুতা পেটার ভয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের পলায়ন


স্টাফ করসপনডেন্ট, সরিষাবাড়ী
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে কৃষকলীগ নেতাকে লাঞ্চিত করায় স্থানীয় মহিলাদের জুতাপিটার ভয়ে পালিয়ে গেলেন লাঞ্চিতকারী ইউপি চেয়ারম্যান। সোমবার (১২ মার্চ) বিকেলে উপজেলার পিংনা ইউনিয়নের পদ্মপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা ইউনিয়নের নরপাড়া থেকে পদ্মপুর ব্রীজপাড় পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্ত করন কাজ শুরু করে এলজিইডি। ওই রাস্তার দু’পাশের জমির মালিকরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকমের ফলজ ও বনজ গাছ রোপন করেছেন। কিন্তু রাস্তা প্রশস্তকরনের কারনে কৃষকদের লাগানো গাছ গুলোতে লাল দাগ দিয়ে চিহ্ন করা হয়। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও পিংনা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাহার হোসেন জোর করে চিহ্নিত গাছ গুলো তার ইউনিয়ন পরিষদের বলে দাবী করেন। সোমবার বিকেলে চেয়ারম্যান গাছ কর্তন করতে গেলে পিংনা ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক মুখলেছুর রহমান বাঘা এলাকাবাসীর পক্ষে প্রতিবাদ করেন। এ সময় তাকে মারপিট করে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে এলাকার প্রায় অর্ধশত নারী-পুরুষ সংঘটিত হয়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে জুতা পেটা করতে ধাওয়া করে। পরে চেয়ারম্যান দৌড়ে পালিয়ে আত্মরক্ষা করেন।
এ ব্যাপারে পদ্মপুর গ্রামের কৃষক এরশাদ আলী (৬৫), বাবু মিয়া (৪০), কালাম (৭০), রাবেয়া (৩৭), রমিজা (৩৪), উম্মিলাসহ অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, রাস্তার দু-পাশে আমাদের বাড়ি। আমরা গাছ লাগাইছি। ঐ গাছ চেয়ারম্যান জোর করে কেটে নিয়ে যাইতেছে। আমরা এর বিচার চাই।
জানতে চাইলে প্রতিবাদকারী পিংনা ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক মুখলেছুর রহমান বাঘা বলেন, পিংনা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাহার হোসেন এর নেতৃত্বে কৃষকের লাগানো রাস্তার দু পাশের গাছ কেটে সাবাড় করছে এর প্রতিবাদ করায় আমাকে ঘাড় ধাক্কা সহ মারপিট করে। এ সময় এলাকার নারী পুরুষরা সমবেত হয়ে চেয়ারম্যান কে জুতা পেটা করতে ধাওয়া করলে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে পিংনা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাহার হোসেন তার পরিষদের গাছ দাবী করে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমাদের দলীয় লোকের সাথে একটু অসদাচরন হয়েছে। এটা মিমাংসার জন্য মুখলেছুর রহমান বাঘা’র বাড়িতে বসবো। এটা পত্রিকায় দিয়েন না।
উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী মুহাম্মদ শফিউল্লাহ খন্দকার বলেন, সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা ইউনিয়নের নরপাড়া থেকে পদ্মপুর ব্রীজপাড় পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্ত করন কাজ শুরু করায় রাস্তার দু পাশে লাগানো গাছে এলজিইডি’র অংশ রয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান বিজ্ঞপ্তি’র মাধ্যমে গাছ কর্তন ও বিক্রি করছেন কিনা এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।