শুক্রবার , নভেম্বর ১৫, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

সরিষাবাড়ী আরডিএম মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ


স্টাফ করসপনডেন্ট, সরিষাবাড়ী
জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী সরিষাবাড়ী আরডিএম মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় শতবর্ষি একটি প্রতিষ্ঠান। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী ওয়াল ইলেকট্রনিক্স পণ্যের প্রচারনা কাজে ভাড়া দেয়া ও সরকারী সড়কের গাছ কর্তন, অর্থ আত্মসাতসহ নানা অভিযোগ করেছে এলাকাবাসী। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর রবিউল ইসলাম নামে এক ব্যাক্তি স্বাক্ষরিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ছাড়াও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার বরাবর অনুলিপি প্রদান করা হয়েছে।
স্থানীয় ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জামালপুরের-দিগপাইত-তারাকান্দি সড়ক ও জনপদের সড়কের পার্শ্বে সরিষাবাড়ী আর ডি এম পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের পূব পার্শ্বে শিক্ষকদের আবাসিক এলাকার (সাবেক ছাত্রাবাস) পুরোনো ঘর ভেঙ্গে নতুন ঘর করার কাজ শুরু হয়। আবাসিক এলাকার পাশে মেইন রোড়ের পূর্ব পার্শ্ব থেকে মূল্যবান ১১টি সরকারী গাছ কর্তন করেছেন আর ডি এম পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম। মূল্যবান গাছ সড়ক ও জনপদ বিভাগের ভূমিতে রোপিত হলেও কাউকে তোয়াক্কা না করে কোন ধরনের অনুমোদন ছাড়াই গাছ কর্তন করেছেন। এ নিয়ে সচেতন এলাকাবাসী গাছ কর্তনকারীর বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। এ ছাড়াও এ প্রতিষ্ঠানটির শিমলা বাজার সড়কের পাশের বাউন্ডারী ওয়ালে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম আরামনগর বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রুনা এন্টারপ্রাইজের নিকট ভাড়া দিয়েছেন বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বর্তমান সরকারের শিক্ষা খাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন ও সাফল্য অথবা মনিষীদের বাণী না লিখে নিজে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্য মনগড়াভাবে প্রতিষ্ঠানের গভর্নিংবডির অনুমোদন ছাড়াই ওয়াল ভাড়া প্রদান করেছেন। সম্প্রতি বিদ্যালয়ের পরিবেশ ভারসাম্য রক্ষা না করে মনগড়া ভাবে বিদ্যালয়ের গাছ বিক্রিসহ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন তহবিল তছরুপ কোটি কোটি টাকার সম্পদের মালিক হয়ে গেছেন বলে জোরালো অভিযোগ উঠেছে। প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম শিক্ষক সমিতির সভাপতি হয়ে নিম্নমানের বই প্রকাশনী কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা উৎকোচ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিকট চড়া দামে শিক্ষাথীদের উপর চাপিয়ে দিয়ে গাইড বই ক্রয় করতে বাধ্য করেন বলে অভিবাবকদের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামের এ হেন কর্মকান্ডে অভিভাবক এলাকাবাসীসহ এলাকার সচেতন মহলের মাঝে তীব্র সমালোচনার ঝড় বইছে।

error: Content is protected !!