সোমবার , নভেম্বর ১৮, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

ইসলামপুরে যথাযথ মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত ও বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল উদ্বোধন


লিয়াকত হোসাইন লায়ন, স্টাফ করসপনডেন্ট, ইসলামপুর
জামালপুরের ইসলামপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ, ডিজিটাল সড়ক পরিবহনসহ ১২টি ইউনিয়নে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।


সকালে উপজেলা পরিষদ চত্তরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করেন স্থানীয় এমপি আলহাজ¦ ফরিদুল হক খান দুলাল। পরে উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে এক র‌্যালী বের হয়ে পৌর শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে অডিটরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদুল হক খান দুলাল, ইসলামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সুমন মিয়া, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আঃ খালেক বিএসসি, রোজিনা আক্তার চায়না, সহকারী কমিশনার ভূমি সুরাইয়া আক্তার লাকী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জামান আবু নাছের চার্লেস চৌধুরী, পৌর মেয়র আব্দুল কাদের সেখ, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মানিকুল ইসলাম, ইসলামপুর থানার ওসি আবুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ। এতে দলীয় নেতাকর্মী ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। পরে উপজেলা পরিষদ চত্তরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন করে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।


উল্লেখ্য যে,১৯৭৫ সালের এই দিন জাতি হারিয়েছে তার গর্ব, আবহমান বাংলা ও বাঙালির আরাধ্য পুরুষ, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। এ দিনে বাঙালি জাতির ইতিহাসে কলঙ্ক লেপন করেছিল সেনাবাহিনীর কিছু বিপথগামী কর্মকর্তা আর ক্ষমতালিপ্সু কতিপয় রাজনীতিক। রাজনীতির সঙ্গে সামান্যতম সম্পৃক্ততা না থাকা সত্ত্বেও বঙ্গবন্ধু পরিবারের নারী-শিশুরাও সেদিন রেহাই পায়নি ঘৃণ্য কাপুরুষ এই ঘাতকচক্রের হাত থেকে। সেদিন বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে আরও প্রাণ হারান তার সহধর্মিণী, তিন ছেলেসহ পরিবারের ১৮ জন সদস্য। বিদেশে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। জনমানস থেকে নিশ্চিহ্ন করার লক্ষ্যে ঘাতকরা ৪৪ বছর আগে যাকে হত্যা করেছিল, বাঙালির হৃদয়ে অবিনাশী হয়ে আছেন।

error: Content is protected !!