রবিবার , সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গাইবান্ধার দুই উপজেলার ১৮০ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ


রওশন আলম পাপুল, গাইবান্ধা
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ বুড়াইল গ্রামের দক্ষিণ বুড়াইল (কত্তিকুড়া) ক্বারীউল কোরআন নুরানী হাফিজিয়া ক্বওমী মাদরাসা মাঠে শনিবার দুপুরে উত্তর বুড়াইল, দক্ষিণ বুড়াইল ও কাঠুর এবং সাঘাটা উপজেলার পদুমশহর ইউনিয়নের পদুমশহর গ্রামের ১৮০টি পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। সাদুল্লাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের তরফপাহাড়ী গ্রামের তানজিদ আজাদ রোকনের উদ্যোগে এই ত্রাণ বিতরণ করা হয়।


ত্রাণের মধ্যে ছিল পাঁচ কেজি চাল, দেড় কেজি আলু, আধা লিটার সয়াবিন তেল, ৭৫০ গ্রাম মসুর ডাল, আধা কেজি সেমাই, ২৫০ গ্রাম মুড়ি ও ৭৫০ গ্রাম চিনি। এ ছাড়া ৩০ জনের মাঝে চার হাজার ৫০০ টাকা বিতরণ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ বুড়াইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামসুজ্জোহা বাবলু, বোচারবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক আফাজ উদ্দিন, সাবেক ইউপি সদস্য আবেদ আলী, সমাজকর্মী সোলেমান মিয়া, দক্ষিণ বুড়াইল (কত্তিকুড়া) ক্বারীউল কোরআন নুরানী হাফিজিয়া ক্বওমী মাদরাসা মোহতামিম হাফেজ সাইফুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ, রাসেল প্রামানিক, রেজানুল জান্নাত রুমন, আব্দুস ছালাম, ইজাজুর রহমান আঙ্গুর, সোহানুর রহমান সোহান, নজরুল ইসলাম, মাহামুদ হাসান, রুহুল আল-আমিন রুবেল প্রামানিক, রিফাত হাসান, তাহারুল ইসলাম, মাহামুদ হাসান মামুন, আলমগীর হোসেন আকন্দ, আহসান হাবীব প্লাবন, সানজিদ হাসান সিয়াম ও সাংবাদিক রওশন আলম পাপুল প্রমুখ।

ঢাকার মিরপুরের ক্লিনটেক ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়াটার পিউরিফায়ার এবং বিসিএস কনফিডেন্স কোচিং সেন্টারসহ বিভিন্ন ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠান থেকে সংগৃহীত টাকা দিয়ে ত্রাণের এসব উপকরণ কেনা হয়।

error: Content is protected !!