সোমবার , আগস্ট ২৬, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

ইসলামপুরে বন্যায় সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, ৯০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ


লিয়াকত হোসাইন লায়ন, স্টাফ করসপনডেন্ট, ইসলামপুর
জামালপুরে ইসলামপুরে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। যমুনার পানি বিপদসীমার ১৫২ সেন্টিমটিার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যমুনা-ব্রহ্মপুত্রসহ সবগুলো নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নিয়েছে। উপজেলার ১২ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়ে প্রায় লাখো মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় প্রতি মুহুর্তে প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। এদিকে ইসলামপুর-মাহমুদপুর, ইসলামপুর-গুঠাইল, চিনাডুলী-উলিয়ার বাজার, গিলাবাড়ী-বামনা, দেলিরপাড়-বামনা সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় দেড় লক্ষাধিক মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নতুন করে পৌর এলাকা আক্রান্ত হয়েছে। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সুত্রে জানাগেছে ৯০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।


উপজেলার চিনাডুলি ইউনিয়নের চিনাডুলি, দেওয়ানপাড়া, ডেবরাইপেচ, বলিয়াদহ, সিংভাঙ্গা, পশ্চিম বামনা, পূর্ববামনা, গিলাবাড়ীর ২০ হাজার, সাপধরী ইউনিয়নের আকন্দ পাড়া, পশ্চিম চেঙ্গানিয়া, পূর্ব চেঙ্গানিয়া, কাশাড়ীডোবার ৫ হাজার, কুলকান্দি ইউনিয়নের পূর্ব কুলকান্দি, বেরকুসা, টিনেরচর, সেন্দুরতলী, মিয়া পাড়া’র ১৫ হাজার, বেলাগাছা ইউনিয়নের কাছিমারচর, দেলীপাড়, গুঠাইল’র ২০ হাজার, পাথর্শী ইউনিয়নের শশারিয়াবাড়ী, মোরাদাবাদ, মুখশিমলা, হাড়িয়াবাড়ী, পশ্চিম মুজাআটা’র ১০ হাজার, নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের উলিয়া, সোনামুখি, রামভদ্রা, কাজলা’র ১০ হাজার, সদর ইউনিয়নের পচাবহলা, পাঁচবাড়িয়া, ফকিরপাড়া’র ১৫ হাজার পানিবন্দি হয়েছে বলে এসব ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা জানিয়েছেন। বন্যার পানির স্রোতে বেলগাছা ইউনিয়নের মন্নিয়ার চর, বরুল’র ৫০টি, চিনাডুলী ইউনিয়নের দেওয়ানপাড়া গ্রামের ২০টি ও নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ১৫ পরিবারের ঘরবাড়ি ভেসে গেছে। সরকারি হিসাবে ইসলামপুরের সাত ইউনিয়নের ৭২ হাজার মানুষ বন্যা আক্রান্ত হয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বানভাসীরা তাদের ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার সময়ও পাচ্ছেনা। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু জানান, সরকারের পক্ষ থেকে ৯০ মেট্রিকটন চাল, এক লাখ টাকা ও ৪০০ প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, বন্যা আক্রান্তদের ত্রান কার্যক্রম অব্যহত আছে। প্রতিনিয়তই খোজখবর রাখা হচ্ছে। ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি সুমন মিয়া জানান, বন্যা মোকাবেলা সহ যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহীনি তৎপর রয়েছে।


উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এড. জামান আবদুন নাছের বাবুল জানান, উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে। বন্যা দুর্গতদের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে তাদের জন্য খিচুরী, রটি তৈরি করে বিতরন করছি। বন্যা দুর্গতদেও প্রতি সহমর্মী হয়ে সব সময় পাশে আছি থাকবো।

error: Content is protected !!