সোমবার , আগস্ট ১৯, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

আন্তর্জাতিক মুক্তি ও মানবাধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র উৎসব

বিনোদন ডেস্ক

‘রোহিঙ্গা পীড়ন’-কে মূল প্রতিপাদ্য ধরে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের আয়োজনে সপ্তম বারের মতো শুরু হচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক মুক্তি ও মানবাধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র উৎসব’।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ১৮ থেকে ২২ এপ্রিল মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের মূল মিলনায়তনের সেমিনার রুম (বেসমেন্ট-২), চলচ্চিত্র প্রদর্শন কক্ষ (বেসমেন্ট-২), উন্মুক্ত মঞ্চে চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।

উৎসবের তিনটি বিভাগে ছবি দেওয়া যাবে। এর মধ্যে আছে, ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম সেকশনে সারা বিশ্বের সাম্প্রতিক মুক্তি ও মানবাধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে। এই বিভাগে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ পরবর্তী সময়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্রসমূহ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে যোগ্য বিবেচিত হবে।

১৯৯৭ ও বিয়োন্ড বিভাগে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সাম্প্রতিক সময়ে নির্মিত মুক্তিযুদ্ধ ও তৎপরবর্তী সময় নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে। এ বিভাগে প্রদর্শিতব্য চলচ্চিত্রসমূহের সর্বোচ্চ ব্যাপ্তিকাল হবে ৬০ মিনিট। এই বিভাগে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী প্রামাণ্যচিত্রসমূহ থেকে একটি ছবিকে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেওয়া হবে। যার মূল্যমান ১ লক্ষ টাকা। এই বিভাগে কেবল ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ পরবর্তী সময়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্রসমূহ অংশগ্রহণে যোগ্য বিবেচিত হবে।

সবশেষ ওয়ান মিনিট ফিল্ম বিভাগে ১ মিনিট দৈর্ঘ্যবিশিষ্ট চলচ্চিত্রসমূহ অংশগ্রহণের যোগ্য বিবেচিত হবে। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এই বিভাগে অংশগ্রহণ করতে পারবে। অংশগ্রহণকারীদের বয়স সীমা ১২-২২ বছর। নির্মিতব্য চলচ্চিত্রের বিষয়-মুক্তিযোদ্ধার সাথে একদিন, বধ্যভূমিতে একদিন অথবা মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে একদিন এই ৩টি বিষয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রসমূহ জমা দেওয়া যাবে। চলচ্চিত্র জমা দানের ক্ষেত্রে  প্রতিষ্ঠানের প্রধানের প্রত্যয়নপত্র প্রয়োজন হবে। চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পাশাপাশি একাধিক কর্মশালারও আয়োজন করা হবে।

সুত্রঃ বিডি নিউজ

error: Content is protected !!