বৃহস্পতিবার , নভেম্বর ১৫, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

গুনাইবিবি মঞ্চায়নের মধ্যদিয়ে শেষ হলো জামালপুরে দু’দিনব্যাপী গীতিনাট্য উৎসব

স্টাফ করসপনডেন্ট:
গ্রাম বাংলার হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতিকে তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে জামালপুরের দু’দিনব্যাপী গীতিনাট্য উৎসব সমাপ্ত হয়েছে।
শনিবার সন্ধ্যায় জামালপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকির পৃষ্ঠপোষকতায় উৎসবের দ্বিতীয় দিনে মঞ্চস্থ হয় লোক গীতিনাট্য ‘গুনাইবিবি’। গীতিনাট্য পরিচালনা ও নির্দেশনা করেন খন্দকার হাফিজুর রহমান রিপন। ব্রিটিশ আমলের বরিশাল শহরের কীর্তন খোলা নদী তীরবর্তী একটি গ্রামের দাম্পত্য জীবনের বাস্তবধর্মী ঘটনা অবলম্বে প্রেম কাহিনী নিয়ে রচিত গুনাইবিবি। জমিদার লাল মিয়ার ছেলে তোতা মিয়ার সাথে গুনাইবিবি’র বিয়ে হয়। জমিদার লাল মিয়ার মৃত্যুর পর তার ভাই দুলু মিয়ার চক্রান্তের শিকার হয় ভাতিজা তোতা মিয়া ও তার স্ত্রী গুনাইবিবি দাম্পত্য জীবন। দুলু মিয়ার লোলপ দৃষ্টি পড়ে নিজ ভাতিজার স্ত্রী গুনাইবিবি’র উপর। আপন ভাতিজার স্ত্রীর ইজ্জত হরণ, মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে ভাতিজাকে জেলে পাঠিয়ে সম্পত্তি গ্রাসের কাহিনী জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নাট্যকর্মীরা চমৎকারভাবে ফুটিয়ে তোলে। অসংখ্য দর্শক উপভোগ করেন গীতিনাট্যটি। উৎসবের প্রথম দিনে মঞ্চস্থ হয় লোক কাহিনী ‘গুনাইবিবি’ গীতিনাট্য।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর উপ-পরিচালক (অর্থ) শহিদুল ইসলাম জানান, গ্রাম বাংলার হারিয়ে যাওয়া লোক সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনতে এবং সংস্কৃতি চর্চাকে শুধুমাত্র শহর কেন্দ্রিক না রেখে জেলা ও উপজেলাসহ তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতেই এই উদ্যোগ। এ ধরনের আয়োজন পর্যায়ক্রমে সারাদেশেই ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।