রবিবার , ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

পুষ্টিবিদের পরামর্শ : ওজন কমানোর জন্য আমাদের কি কি করনীয়


ফজলে এলাহী মাকাম, স্টাফ করসপনডেন্ট
নিজেকে ফিট রাখতে আমরা কতকিছুই না করি। আর এই শারীরিক ভাবে ফিট থাকতে আমাদের পরিমিত খাবার গ্রহন ও নিয়মিত ব্যায়াম করা খুবই জুরুরী। আর এ বিষয়ে সাংবাদিক ফজলে এলাহী মাকাম এর সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে কথা বলেছেন, জামালপুর ডায়াবেটিস হাসপাতালের পুষ্টিবিদ জাহিদা সুলতানা।
প্রশ্ন : ওজন কমানোর জন্য আমাদের কি কি করনীয় ?
উত্তর : বর্তমান সময়ে আমরা সবাই স্বাস্থ্য সচেতন। এ সচেতনতার ধারাবাহিকতায় যাদের ওজন বেশি তারা ওজন কমাতে আগ্রহী। কিন্তুু ঠিক করতে পারছেন না কিভাবে শুরু করবেন ? কি কি করবেন ? ওজন কমানোর জন্য ৩টি ধাপ প্রয়োজন।
ক্স ১ম ধাপ মানসিক প্রস্তুতি
ক্স ২য় ধাপ হাঁটা/ব্যায়াম
ক্স ৩য় ধাপ খাবার নিয়ন্ত্রন
প্রশ্ন : ওজন কমানোর জন্য আমারা কিভাবে প্রস্তুতি নিতে পারি ?
উত্তর : মানসিক প্রস্তুতিটা প্রথমেই প্রয়োজন কারণ মনস্থির না হলে আপনি ওজন কমাতে সফল হবেন না। ওজন কমাতে চাইলে আপনাকে প্রথমে জীবন যাপনে পরির্বতন আনতে হবে। যেমন- দেরি করে ঘুমানো ও ঘুম থেকে দেরি করে উঠার অভ্যাস থাকলে পরির্বতন করা। যে সকল খাবার ওজন বাড়ায় তা যত পছন্দের খাবারই হোক না কেন বাদ দিতে হবে দৈনিক খাদ্য তালিকা থেকে। প্রথমেই একবারে বাদ না দিয়ে ধীরে ধীরে কমাতে থাকুন এর এক পর্যায়ে তা সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিন।
প্রশ্ন : ওজন কমানোর জন্য খুব অল্পই খাই তবুও ওজন বাড়ছে কেন ?
উত্তর : অনেকের ধারনা আমি তো খুব অল্পই খাই তবুও ওজন বাড়ছে কেন ? নিজে সনাক্ত করার চেষ্টা করুন যে কোন ১টা বিশেষ খাবারের প্রতি আপনার দূর্বলতা আছে কিনা যেমন- আপনি হয়তো বা খাবার বেশি খাচ্ছেন না কিন্তুু চা খান দিনে ৫-৭ বার। সেক্ষেতে চিনি থেকে অনেকটা ক্যালরি আপনার বাড়তি যোগ হচ্ছে।
প্রশ্ন : ওজন কমানোর জন্য আমরা কি করবো ?
উত্তর : সকালের নাস্তায় ভারী খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। অনেকেই বলেন সকালে খেতে ইচ্ছা করে না। খেয়াল করে দেখবেন ঘুম থেকে উঠার সাথে সাথে খাবার খেতে ইচ্ছা করে না। খাবার গ্রহনের অন্তত ১ ঘন্টা আগে ঘুম থেকে উঠুন। হালকা ব্যায়াম/ঘরের স্বভাবিক কাজ করুন। ৩ বেলা খাবার গ্রহন না করে ৫-৬ বার খাবার খান। একসাথে পেট ভার না খেয়ে অল্প অল্প করে বার বার খাবার খাওয়ার অভ্যাস তৈরী করুন। বিকালের নাস্তায় ভাজা পোড়া না খেয়ে হাতের তৈরী তেলছাড়া পিঠা, মুড়ি, বিস্কুট, নুডলস তেল কম দিয়ে রান্না খেতে পারেন। প্রতিদিনের খাবারে তাজা ফলমূল রাখতে চেষ্টা করুন। দেশীয় মৌসুমী ফল খাবেন। সকালের খাবার হবে ভারী, দুপুরে তার চাইতে কম এবং রাতে আরও কম খাবেন। হাঁটার অভ্যাস তৈরী করুন। যে পথটুকু রিকশায়, গাড়ীতে যাবেন দূরত্ব কম হলে হেঁটে যান অথবা দিনের একটা র্নিদিষ্ট সময় বের করে নিন হাটার জন্য। প্রথম দিন ১৫ মিনিট করে হাঁটুন পরবর্তীতে হাঁটার সময় ও গতি দুটোই বাড়াবেন। আইসক্রীম, চকলেট, চিপস, ভাজা পোড়া খাবার, ফাষ্ট ফুড, চিনি, মিষ্টি ও অধিক তেল খাবার বর্জন করুন।
মনে রাখবেন একটা নির্দিষ্ট খাবারে ওজন কমানো সম্ভব না। পরিমিত খাবার গ্রহন ও নিয়মিত ব্যায়মই পারবে অপনার কাঙ্খিত ওজন কমাতে।

error: Content is protected !!