রবিবার , অক্টোবর ২১, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

১৮ বছর পর জমি দখল পেল সরিষাবাড়ী নাওগোলা দাখিল মাদ্রাসা

স্টাফ করসপনডেন্ট, সরিষাবাড়ী
জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার নাওগোলা ফয়েজের মোড় দাখিল মাদ্রাসা’র নামে ১৮ বছর আগে রেজিষ্ট্রি মূলে দান করা জমি ফিরে পেয়েছে। দেড় যুগ যাবৎ দান করা জমি ভোগ দখলের পর পরকালের চিন্তায় দাতা সেই জমি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের নিকট অবশেষে দখল হস্তান্তর করেন। মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সদস্য, শিক্ষক-কর্মচারী ও এলাকার জনসাধারনের উপস্থিতিতে মাদ্রাসার সুপার জয়নাল আবেদীনের নিকট জমির দাতা আব্দুল খালেক দখল সত্ত্ব হস্তান্তর করে মাদ্রাসার সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে দেন।
মাদ্রাসা ও জমি দানকারী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের নাওগোলা ফয়েজের মোড় দাখিল মাদ্রাসা’র নামে ভাটারা ইউনিয়নের ফুলদহ গ্রামের আব্দুল খালেক বাঙ্গালী মৌজার ২০ শতাংশ জমি ২০০০ সালের ৩১শে আগষ্ট রেজিষ্ট্রি মূলে দান করেন। দানকৃত জমি দীর্ঘ ১৮ বছর মাদ্রাসার নিকট বুঝিয়ে না দিয়ে জমি দাতা আব্দুল খালেক জীবনের শেষ লগ্নে এসে পরকালের সুখের কথা চিন্তা করে তার পুত্র মতিয়ার রহমানের প্রত্যক্ষ সহযোগীতায় মঙ্গলবার মাদ্রাসার সুপার জয়নাল আবেদীনের নিকট দখল হস্তান্তর করেন। এ সময় মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন, মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারী, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ জমির দখল ফিরে পেয়ে ওই জমিতে মাদ্রাসার সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে দিয়েছেন। দীর্ঘ দেড় যুগ পর জমির দখল ফিরে পেয়ে মাদ্রাসার শিক্ষক, কর্মচারী, শিক্ষার্থী, অভিবাবকসহ সর্ব মহল সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এ ব্যাপারে জমি দাতা আব্দুল খালেক ও তার পুত্র মতিয়ার রহমান জানান, মাদ্রাসার নামে ইতিপূর্বে রেজিষ্ট্রি দলিল করে দেয়া জমি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের নিকট আমরা দখল বুঝিয়ে দিয়েছি। মাদ্রাসার সুপার জয়নাল আবেদীন জানান, জমি দাতা আব্দুল খালেক তার দান করা জমি বুঝিয়ে দিলেও তার ছেলে পঞ্চাশী রেজাউল হক কাবেরিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আব্দুল মান্নানের দান করা ৪০ শতাংশ জমি এখনও মাদ্রসা দখল পায়নি। সেই জমি উদ্ধারের অনেক চেষ্টা করার পরও জমি ফিরে পাওয়া সম্ভব হয়নি। সেই দান করা জমি উদ্ধারে প্রাশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।