বৃহস্পতিবার , অক্টোবর ১৮, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ

আজিজুর রহমান চৌধুরী
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামালপুর-১ (দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ) আসনে নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ আওয়ামীলীগের সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য প্রার্থী বলে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন চলছে।
স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ দেওয়ানগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও দেওয়ানগঞ্জ কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি ছিলেন। তিনি দেওয়ানগঞ্জের চুকাইবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ও দেওয়ানগঞ্জ পৌর সভার মেয়রও নির্বাচিত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সততা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়ে সুখ্যাতি অর্জন করছেন।
দলীয় সুত্রে জানাগেছে, বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনগুলোতে জামালপুর-১ আসনে নৌকা প্রতিকে বকশীগঞ্জের চেয়ে দ্বিগুন ভোট দিয়েছে দেওয়ানগঞ্জবাসী। সেই হিসাবে এ আসনে দেওয়ানগঞ্জের প্রার্থীকে মনোনয়ন দিলে নৌকার বিজয় সুুনিশ্চিত। এ আসনের বর্তমান এমপি আবুল কালাম আজাদ সরকারী উন্নয়ন বরাদ্দের ক্ষেত্রে আতœীয়করণ নীতি অবলম্বন করায় এবং বার্ধক্যের কারণে তিনি সম্প্রতি দলীয় নেতা-কর্মী থেকে অনেটাই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। অপরদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ একজন ক্লীন ইমেজের নেতা হয়ে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসাবে সক্রিয় থাকায় তারই গ্রহণযোগ্যতা সর্বাধিক বলে গুঞ্জন চলছে।
দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, “ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে দীর্ঘ ৩৬ বছর পার করেছি। আমি সর্বদায় এলকায় অবস্থান করে দলীয় নেতা-কর্মীদের সুখে দু:খে পাশে দাড়িয়েছি। বিগত দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রতিকের বিজয় নিশ্চিত করতে গিয়ে বর্তমান এমপির ভাতিজা বিদ্রোহী প্রার্থী নুরন্নবী অপুর সমর্থদের আঘাতে আমার সহোদর বড় ভাই হাজি আব্দুস সালামকে হারিয়েছি। এরপরও বঙ্গবন্ধুর আদ্বর্শ বুকে ধারণ করেই শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করতে চাই।