মঙ্গলবার , আগস্ট ২০, ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

ইসলামপুরে যমুনার ভাঙনে ৩ শতাধিক ঘরবাড়ি বিলীন


লিয়াকত হোসাইন লায়ন, স্টাফ করসপনডেন্ট, ইসলামপুর
জামালপুরের ইসলামপুরে যমুনার ডানতীরে ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। প্রায় ১ মাস যাবত ভাঙ্গনে উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের মন্নিয়া, বরুল ও শীলদহ গ্রামে প্রায় সাড়ে ৩ শতাধিক ঘরবাড়ি নদীতে ইতিমধ্যে বিলীন হয়েছে।


বাড়তি পানির তীব্র স্রোতে মন্নিয়া গ্রাম, বরুল গ্রাম আংশিক ভাঙ্গলেও শীলদহ গ্রাম পুরোটাই বিলীন হয়েছে। নদীভাঙনে ভিটামাটি হারিয়ে ৩ গ্রামের কয়েক’শ পরিবার খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

জানাগেছে, এবার এ উপজেলায় বন্যা না হলেও যমুনার পশ্চিমপাড়ে ব্যাপক নদীভাঙন শুরু হয়েছে। এতে বেলগাছা ইউনিয়নের শীলদহ গ্রামটি সম্পূর্ন নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। ওই গ্রামের প্রায় দেড় শতাধিক পবিরার ঘরবাড়ি হারিয়ে বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়ে অনাহারে-অর্ধাহারে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এ ছাড়া মন্নিয়া ও বরুল গ্রামের ২ শতাধিক পরিবারের ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় অসহায় পরিবারগুলো গৃহপালিত প্রাণী, বৃদ্ধা ও শিশুসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়ে খোলা আকাশের নীচে চরম কষ্টের মধ্যে রয়েছে। মন্নিয়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত তাজেম আলী, হাজের আলী মোল্লা, আবেদ আলী, নুন্দু, আন্দা আলী জানায়, এ পর্যন্ত তারা সরকারি বা বেসরকারি ভাবে কোন সাহায্য সহযোগিতা পায়নি। বেলগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক জানান, এ বছর বন্যা মওসুমে বেলগাছা ইউনিয়নের ৩টি গ্রামের প্রায় সাড়ে ৩ শতাধিক পরিবারের ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীণ হয়েছে। তবে তিনি এখন পর্যন্ত ওইসব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের তালিকা উপজেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ শাখায় দাখিল করেননি বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা দপ্তরের প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান টিটু জানান, চেয়ারম্যান মৌখিক ভাবে নদীভাঙ্গণের সংবাদ জানালেও ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা দাখিল করেননি। তালিকা পেলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের ঢেউটিনসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হবে।

error: Content is protected !!