রবিবার , এপ্রিল ২২, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

জামালপুরে দুই জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লাঞ্ছিত মামলার রায়ে ২৬ জনের কারাদন্ড

জুয়েল রানা, স্টাফ করসপনডেন্ট:

জামালপুর শহরের মিতালি মার্কেটে দুইজন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লাঞ্ছিত হবার মামলার রায়ে ২৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে অর্থসহ সশ্রম কারাদন্ড এবং ৪ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত। জামালপুরের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সোলায়মান কবীর আজ বুধবার এই আদেশ দেন।
জামালপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, ২০১৭ সালের ১৪ জুন জামালপুর শহরের মিতালি মার্কেটের একটি দোকানে জামালপুরের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবিএম গোলাম রসুল ও সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান লাঞ্ছিত হন। ওই ঘটনায় অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অফিস সহায়ক মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ওই দিনই ১৭ জনের নামে এবং অজ্ঞাত আরো ৫০/৬০ জনকে আসামী করে দন্ড বিধির ১৪৩/৩২৩/৩৩২/৩৫৩/৩৪ ধারায় জামালপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করে (মামলা নং-৩৯)। সদর থানা পুলিশ ২০১৭ সালের ২০ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। মামলাটির বাদীসহ ১২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আজ বুধবার এক রায়ে ২৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ডাদেশ প্রদান করে। এর মধ্যে দন্ডবিধির ১৪৩/৩২৩/৩৪ ধারায় ৬ মাসের সশ্রম কারাদন্ড ও ৫শ’ টাকা জরিমান অনাদায়ে এক মাসের কারাদন্ড, ১৪৩/৩৩২/৩৪ ধারায় ৩ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদন্ড এবং ১৪৩/৩৫৩/৩৪ ধারায় ২ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদন্ড। রায়ে উল্লেখ করা হয়, আসামীদের বিরুদ্ধে প্রদান করা বিভিন্ন মেয়াদের কারাদন্ড একই সাথে চলমান হবে এবং হাজাতবাস থেকে সাজার মেয়াদ বাদ যাবে। এছাড়াও অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় নয়ন, মান্নান, ফারুক ও আব্দুল্লাহ আল মামুনকে বেকসুর খালাস দেন আদালত। রায় প্রদানের সময় দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ৪ জন ও বেকসুর খালাসপ্রাপ্ত ১ আসামী উপস্থিত ছিলেন। আসামী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মো: আনছার উদ্দিন ও আনোয়ারুল করিম শাহজাহান।
সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন মোতাহার, মিন্টু মিয়া, আনোয়ার হোসেন শাহীন, মমিনুল ইসলাম রিপন, পারভেজ, আনোয়ার, হৃদয়, মুক্তা, মোবারক হোসেন রুকন, জহিরুল ইসলাম জলিল, মোস্তফা কামাল, আল আমিন, রকি, কামাল উদ্দিন, হেলাল উদ্দিন, মেরাজুল ইসলাম মদন, রাজিবুল ইসলাম, সেলিম হাসান, আবেদ আলী, পারভেজ, বরাত আলী, আলমগীর হোসেন, নালয়ন বিজয় ওরফে লিয়ন, শাহীন, শফিকুল ইসলাম এবং মুকুল।