শনিবার , সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

সড়কে ফের লাশের মিছিল, নিহত ৩৪

নিউজ ডেস্ক

দিনের শুরুতেই দেশের সড়কগুলো যেন মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে। একাধিক দুর্ঘটনায় এখন সড়কগুলো যেন ব্যস্ত লাশের লম্বা মিছিল নিয়ে। পাঁচ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গাইবান্ধায় ১৭, রংপুরে ৬, গোপালগঞ্জে ৫, ফরিদপুরে ২, সিরাজগঞ্জে ২ এবং নাটোরে ২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার মধ্যরাত ও শনিবার ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধা

ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় ঢাকা থেকে সৈয়দপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ১৭ যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন প্রায় ৪০ জন।

শনিবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে উপজেলার ব্র্যাক মোড় সংলগ্ন বাঁশকাটা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে এখনো হতাহতদের পরিচয় জানা যায়নি। আহতদের পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. আরিফ হোসেন জানান, ঢাকা থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া আলম এন্টারপ্রাইজের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৬৪২২) বাঁশকাটা নামক স্থানে পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থল ও স্থানীয় হাসপাতালে ১৬ জন ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপতালে নেয়ার পর আরো একজনের মৃত্যু হয়।

রংপুর

রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীরে বালুবাহী ট্রাকচাপায় ৬ বাসযাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন। শুক্রবার রাত ২টার দিকে পাগলাপীরের সলেয়াশাহ বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে নিশাত (২০) এবং সাজ্জাদ (১৯) নামে দুইজনের পরিচয় জানা গেছে। তারা দিনাজপুর শহরতলী এলাকার বাসিন্দা। নিহতরা সবাই পোশাক শ্রমিক। ঈদ শেষে তারা কর্মস্থলে ফিরছিলেন বলে জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

তারাগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল্লাহ হেল বাকী জানান, দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী বিআরটিসির ডাবলডেকার ঈদ স্পেশাল বাসটির পেছনের চাকা ফেটে গেলে সেটি মেরামতের জন্য সলেয়াশাহ বাজার এলাকায় বাসটি অবস্থান নেয়। এ সময় প্রচণ্ড গরমের কারণে যাত্রীরা বাস থেকে নেমে বাসের পেছেনে রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। সিগন্যাল লাইট না জ্বালিয়ে বাসের চাকা মেরামতের সময় বালুবাহী একটি ট্রাক পেছন থেকে এসে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের চাপা দিয়ে বাসটির পেছনে ধাক্কা দেয়।

গোপালগঞ্জ

ঢাকা-খুলনা মহসড়কের গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ঘোনাপাড়া বাজারে নিয়ন্ত্রণ হারানো একটি বাসের চাপায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, টুঙ্গিপাড়া থেকে ছেড়ে আসা গোপালগঞ্জগামী একটি লোকাল বাস ঘোনাপাড়া মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রথমে একটি মোটরসাইকেল আরোহীকে ধাক্কা দেয়। এরপর রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ভ্যান ও মাহেন্দ্রকে ধাক্কা দিয়ে আইল্যান্ডে উঠে পড়ে। এ সময় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা আর একটি বাসকেও ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসচাপায় দুইজন নিহত হন।

এর আগে লোকাল বাসটি টুঙ্গিপাড়ার খালেক বাজার ওই লোকাল বাসটি আরো একটি ভ্যানকে চাপা দেয় বলে জানা গেছে। এতে ঘটনাস্থলেই ২ জনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আরো অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন। তাদেরকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের ভুইয়াগাতীতে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক ও হেলপার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরো ২০ বাসযাত্রী। শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বগুড়া-নগরবাড়ী মহাসড়কের ভুইয়াগাতী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতেরা হলেন- রায়গঞ্জ উপজেলার শ্যামনাই গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে ট্রাকচালক শরিফ ফকির (৩৫), একই গ্রামের ধুকু মিয়ার ছেলে হেলপার রফিকুল ইসলাম (৩০)।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুর কাদির জিলানী জানান, বগুড়া থেকে ঢাকাগামী আরকে পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ভুইয়াগাঁতী এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাকের চালক ও হেলপার নিহত হন।

নাটোর

নাটোর শহরের আলাইপুরে বালুভর্তি ট্রাকচাপায় নারীসহ দুই অটোরিকশা যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো অন্তঃত তিনজন।

শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে শহরের আলাইপুরস্থ কমলা সুপার মার্কেটের সামনে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন- নলডাঙ্গা থানার সোনাপাতিল গ্রামের মঙ্গল দেবনাথের স্ত্রী সুলতা দেবনাথ ও একই এলাকার কার্ত্তিক চন্দ্র দেবনাথের ছেলে কানাই দেবনাথ।

নাটোর সদর থানার ওসি মশিউর রহমান ও ফায়ার ব্রিগেড স্টেশন অফিসার মুহিউদ্দীন জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে নলডাঙ্গা থেকে নাটোরগামী যাত্রীবোঝাই একটি অটোরিকশাকে নাটোর শহরের আলাইপুরস্থ কমলা সুপার মার্কেটের সামনে বালু ভর্তি একটি ট্রাক পেছন থেকে চাপা দিলে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দু’জন নিহত ও অপর তিন যাত্রী আহত হন।

ফরিদপুর

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী বাস তুহিন পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও ২০জন।  তাদের ভাঙ্গা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার সকালে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার পূর্ব সদরদি নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, বাসটির চালক ইব্রাহিম ও হেলপার হাফিজ।

ভাঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ওসি এজাজুল জানান, তুহিন পরিবহনের বাসটি বরিশাল থেকে বগুড়া যাচ্ছিলো।  এসময় ভাঙ্গা উপজেলার পূর্ব সদরদি নামক এলাকায় আসার পর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যায়।  নিহতদের মরদেহ ভাঙ্গা হাইওয়ে থানায় রাখা হয়েছে।  আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ভাঙ্গা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্রঃ ডেইলি বাংলাদেশ