সোমবার , জুলাই ১৬, ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

নিউজ ডেস্ক.

দেশবাসীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১ জানুয়ারি সোমবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে বাণিজ্য মেলার ২৩তম আসরের উদ্বোধন ঘোষণা করেন তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সবাইকে হ্যাপি নিউ ইয়ার জানাই। নতুন বছরের শুভেচ্ছা। আশা করি, নতুন বছর উন্নয়ন ও প্রগতি নিয়ে আসবে।’

অনুষ্ঠানের শুরুতে উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শীর্ষক একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়। বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমদ, বাণিজ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম এবং বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের সচিব সুভাশীষ বসু এবং ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বক্তব্য দেন।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ওই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য। মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও রপ্তানিকারক এবং মেলায় অংশগ্রহণকারী দেশি-বিদেশি প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে।

আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা বাণিজ্য মেলা চলবে। প্রবেশ মূল্য প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ৩০ টাকা, অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

ইপিবির তথ্যমতে, এবারের মেলায় স্টল ও প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ৫৪০টি। তবে গত বছর মেলায় অংশ নিয়েছিল ৫৮৪টি প্রতিষ্ঠান। সেই হিসেবে এবার মেলায় স্টল কমছে ৪৪টি।

আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, জনগণের চলাচলের সুবিধার্থে এবার স্টলের সংখ্যা কমানো হয়েছে। মাসব্যাপী এবারের মেলায় বাংলাদেশসহ ১৭টি দেশ অংশ নেবে।

থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, সিঙ্গাপুর, মরিশাস এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ৪৩টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে এবারের মেলায়।

উল্লেখ্য, ২০২০ সাল থেকে পূর্বাচলে স্থায়ী ভেন্যুতে বাণিজ্য মেলা হওয়ার কথা রয়েছে।